Share with your friends
  •  
  •  
  •   
  •  

মানুষের কি একাই লড়াই করে যায় ?

মানুষের জাগতিক সম্পর্ক, জীবনযাপন, সমবেত ভাবে লড়ে অধিকার আদায় ইত্যাদি যে একটা জটিল  বিষয়, তা নিয়ে  বিশ্লেষক, ভাষাবিজ্ঞানী ও দার্শনিকরা যুগে যুগে গবেষণা করে যাচ্ছেন ।

দার্শনিকদের মতের ভিত্তিতে বলা যায়  ‘মানুষ মূলত একা’।
একাকিত্ব একটা অনুভূতি। অনেকে আবার বলেন-আধুনিক মানুষের রোগ। হতে পারে এটি বাস্তবতাও। কিন্তু মানুষ কি একা লড়াই করতে পারে? একা লড়ে বাঁচতে পারে? আপাত আমরা তো সংঘবদ্ধভাবেই বাস করি। সমাজ সংসারে  মিলেমিশেই আমাদের বেঁচে থাকা। কিন্তু যৌথ সমাজেই কিন্তু একা থাকার, একা বাঁচার, একলা লড়াইয়ের ঘটনাগুলো বাড়ছে। আমাদের যাপিত জীবনে ক্রমশ আমরা কেমন যেন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছি, হয়ত নানা রকম অস্থিরতা এর জন্য দায়ী ।

অনেক মানুষ আক্ষেপের সাথেই ভাবেন , পৃথিবীর প্রত্যেকটা মানুষ বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। পথ যা, তা একাই পাড়ি দিতে হয়। যন্ত্রনাময় ঘুমহীন রাতগুলো একলা পার করতে হয়। হারতে থাকা যুদ্ধগুলোও লড়তে হয় একা একাই। সব শেষে আলো-আঁধারির ফুটপাতে একা বসেই ভাবতে হয় একান্ত কিছু বিচ্ছিরি অনুভূতির কথা। সবকিছুর শেষে মানুষ আবারও উঠে দাঁড়ায়, বাঁচে আরও কিছু একা মানুষের জন্য।

আমরা এ একলা লড়াই বা ব্যক্তিগত লড়াইয়ের ঘটনাগুলো খুব একটা দেখি না, দেখতে চাই কি সেটাও একটা প্রশ্ন। কেননা যারা একা থাকেন তারাও শেষ বিচারে কোনো যৌথতার প্রতীক্ষাকেই থাকেন। নানা রকম প্রতিকুলতার ভিতর একলা লড়াই করে মানুষ তার অস্তিত্তকে টিকিয়ে রাখে, তবে কতটা অন্তহীন অপেক্ষা এরা করতে পারে, অসহ্য দমবন্ধ পরিস্থিতির মধ্যেও কতটা আশায় এরা দিন গুনতে পারে, নিজেদের একলা লড়াই কত দূর অবধি এরা এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে-সেটা উপলব্ধি করা আমাদের অনেকের সাধ্যেরই বাইরে।

আমাদের গ্রুপে একটা প্রশ্ন ছিল ,

নানা রকম প্রতিকুলতার ভিতর একা একা লড়াই করার জন্য অস্ত্র হিসাবে কি কি থাকা চাই ?

অনেকেই পজেটিভ ভাবে নানা রকম উত্তর দিয়েছেন  কিছু উত্তর তুলে ধরছি ।
অনেকেই মনে করেন ধৈর্য,বুদ্ধি, সাহস রেখে লক্ষ্য স্থির রেখে এগিয়ে যেতে হবে একলা লড়াই করে যেতে হবে।
Sayka Jabin আপু লিখেছেনঃ  সবার আগে মানসিক শক্তি বা সাহস থাকা চাই । তারপর কৌশলী হতে হবে । একটা স্বপ্ন থাকতে হবে।আর সময় জ্ঞান সচেতন হতে হবে।নিজের প্রতি বিশ্বাস বা আস্থা থাকা জরুরী যা এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে।পজেটিভ চিন্তা করার ক্ষমতা থাকতে হবে ।কথিন সময়ে নিজেকে কন্ট্রোল করার দক্ষতা থাকতে হবে ।পড়ার অভ্যাস থাকতে হবে । তার সাথে টাকা ও একটা বড় বিষয় । তবেই সব কিছু মেনে নিয়েও এগিয়ে যাওয়া যাবে ।
Razib Ahmed   ভাই লিখেছেনঃ একটি স্বপ্ন থাকা চাই। তা আপনার স্বপ্ন নায়িকাকে নিয়ে হোক (সিনেমার নায়িকা নয়), বা জীবনে কোন সাফল্যের ইচ্ছা। ই-ক্যাব নিয়ে লড়াইটা শুধু যে ভয়ংকর ছিল তাই নয় বরং একার লড়াই ছিল। সব দিকে একা, সব সম্পদ, টাকা, সাস্থ্য, সংসার সব কিছু স্যাক্রিফাইস করে চেষ্টা করা।
Razia Sultana আপু লিখেছেনঃ সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার একটা নতুন নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকতে হবে। তবে মনের জোর হলো আসল অস্র। তাছাড়া ত্যাগ, ধৈয্য, বুদ্ধি এবং সাহস এই অস্রগুল থাকা দরকার । এই সবগুলো নিয়ে এই আমি একা পথ চলছি। আল্লাহ সাহায্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। আমি চাই আপনার গ্রুপের সব যুবক যুবতি ভাইবোনেরা আমাকে দেখে তাদের সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আগ্রহ বেরে যায়
Mahenur আপু লিখেছেনঃ প্রথম আত্নবিশ্বাস চেষ্টা করলে আমি পারবো ইনশাআল্লাহ। মনোবল হার জিত থাকবেই আজকের হার কাল জেতার অনুপ্রেরণা। ধৈর্য্য , অধ্যাবসায়, পরিশ্রম করার মানসিকতা।সর্বপরি লেখা পড়ার তো কোন বিকল্প নাই।।কিন্তু লেখা পড়া জানিনা বলেই এটাকে অজুহাত বানিয়ে কোনটাসা হওয়ার নাম কাপুরুষতা।যার এটা নাই ভাবতে হবে তার এগিয়ে যাওয়ার জন্য বাকিসব আছে।। যার সবগুলোর সাথে শিক্ষা না কেবল সুশিক্ষা আছে তিনি হলেন সোনায় সোহাগা।।যার ভেতর এ সবগলোর সমন্বয় আছে সে যে কোন প্রতিকুলতার সাথে লড়াই করে একা চলতে পারবে ইনশাআল্লাহ।