নারকেল দুধ চিংড়ি , ভাত, ভর্তা, ভাজি, আর আম সজনে ডাল দিয়ে দুপুরের খাবারের জন্য বাঙ্গালী মেনু ।
নারকেল দুধে গলদা চিংড়ি
Share with your friends
  •  
  •  
  •   
  •  

নারকেল দুধ চিংড়ি , ভাত, ভর্তা, ভাজি, আর আম সজনে ডাল দিয়ে দুপুরের খাবারের জন্য বাঙ্গালী মেনু ।

সাদা ভাত

বিন্নি বা বাসমতী বা চিনিগুড়া চালের সাদা ভাত, চট্টগ্রামের আতপ চাউলও বেশ সুবাসিত , চাল যে পরিমাণ দেবেন পানি তার ডাবল দিতে হবে ১ঃ২ অনুপাতে ২০ মিনিট লাগবে, মাড় গালা লাগবে না, মটর শুঁটী আর গাজর এর টুকরা দিতে পারেন দেখতে সুন্দর লাগে , রাইস কুকার ব্যবহার করতে পারেন চাইলে

বাসমতি চাল

ভর্তা

ছোট চিংড়ি আর পটলের খোসা আলাদা আলাদা করে তাওয়ায় শুকিয়ে নিন, এইবার রসুন আর মরিচ তেলে একটু ছ্যাকা দিন, তারপর লবণ দিয়ে বেটে ফেলুন পাটায় বেটে নিন আলাদা আলাদা করে ।

করলা ভাজি

করলা ছোট ছোট কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে প্যান এ পিয়াজ, রসুন, আর মরিচ দিন, সাথে ছোট চিংড়ী থাকলে দিয়ে দিন, করলা ছেড়ে দিয়ে , হালকা হ্লুদ + লবণ দিয়ে নাড়তে থাকুন, ২০ মিনিট লাগবে নাড়ার পরে রাখুন, পানি দেবেন না , বা ছিটা পানি দিতে পারেন বেশী শুনিয়ে গেলে।

নারকেল দুধে গলদা চিংড়ি

গলদা চিংড়ীর মাথা ফেলে দিন বা পরিষ্কার করে নিন ভাল করে, পিঠ চিরে পরিপাক নালি বের করে দিন
১. ৬ টা বড় গলদা চিংড়ি
২. নারকেল কাচা হলে ১ টা পুরা নারকেল ব্লেন্ড করে নিন আর ঝুনা হলে ব্লেন্ড করে পানি দিয়ে হালকা ঘন ক্রিম করে ছাবা ছেকে ফেলে দিন
৩. ১ টেবিল-চামচ আদাবাটা,
৪. ১ টেবিল-চামচ রসুনবাটা,
৫. ১ টেবিল-চামচ মরিচগুঁড়া
৬. হাফ কাপ পেঁয়াজবাটা,
৭. ১ চা-চামচ জিরাবাটা,
৮. হাফ টেবিল-চামচ হলুদগুঁড়া,
৯ লবণ আর তেল + ঘি এক চামচ
১০ গরম মসলার গুড়া

প্যান এ তেল আর ঘি দিয়ে গলদা গুলি হালকা একটু ভেজে নিন , মাছ তুলে রেখে বাটা মসলা দিন। মসলাগুলো হালকা লাল হলে জিরা বাটা, লবণ, মরিচ, হলুদ দিয়ে একটু কষিয়ে
নারকেল দুধ চিংড়ি করতে মিনিট চিংড়ী গুলি দিয়ে দিন , দরকার হলে একটু পানি দিন , নেড়েচেড়ে কষিয়ে রান্না করুন। চিংড়ির হয়েছে কিনা বুঝবেন কিভাবে , লাল হবে আর আপনার জিভে জল চলে আসবে  তখন নারিকেল এর দুধ বা ক্রিম দিয়ে দিন, এক চিমটি গরম মসলার গুড়া দিতে পারেন চাইলে, নারকেল দুধ চিংড়ি ১৫ মিনিটের বেশী আর হাই হীটে রান্না করবেন না , করিলে পস্তাবেন , আর নারকেল এর আইটেম এ লবণ সামাল কে ।

কাচা আম/সজনে ডাল বা আম+সজনে ডাল

২ মুঠ মুসুড়ী ডাল নিন ২ পিচ আম ফালি করে কাটুন , এক মুট সজনে কাটুন আঙ্গুলের সাইজ করে , এইবার পাতিলে পানিতে ডাল, খালি আম বা সজনে বা আম সজনে এক সাথে দিন , মরিচ , লবণ, হ্লুদ, কাটা কাচা পিয়াজ, রসুন দিয়ে এক সাথে জ্বাল দিন
২০ মিনিট পর ঘুটে দিয়ে , নামিয়ে রাখুন কোন ডিসে , পাতিল ধুয়ে তেল গরম করে রসুন আর পিয়াজ লাল করে বাগার দিয়ে দিন ।

যে কোন প্রোফাইলের মানুষকে এই মেনু করে খাইয়ে খুশী করতে পারবেন ।

খেতে কেমন হল জানাবেন ।